মিয়ানমারের নিজস্ব স্যাটেলাইট ব্যাবস্থা

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

নিজস্ব আরেকটি স্যাটেলাইট ব্যবস্থা চালুর লক্ষ্যে কাজ করছে মিয়ানমার।

শনিবার দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল নিউ লাইট অফ মিয়ানমার জানায়, ২০১৯ সালের জুন মাসে মিয়ানমারস্যাট-২ মহাকাশে পাঠানো হবে।

মিয়ানমারস্যাট-১ নামে ইতোমধ্যে একটি স্যাটেলাইট ব্যবস্থা রয়েছে দেশটির। কিন্তু এটি ইজারার মাধ্যমে চালাচ্ছে দেশটি। মিয়ানমারস্যাট-২ চালু হলে এটি হবে দেশটির দ্বিতীয় স্যাটেলাইট ব্যবস্থা, বলা হয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আইএএনএস-এর প্রতিবেদনে।

নতুন স্যাটেলাইটের বিষয়ে দেশটির ভাইস-প্রেসিডেন্ট ইউ মিন সু বলেন, “তিনটি পথ, কনডোস্যাট যা অন্য দেশের স্যাটেলাইট ট্রান্সপন্ডার ইজারা দিয়ে থাকে, যৌথ মালিকানা ব্যবস্থা এবং পুরো মালিকানা ব্যবস্থা ঠিক করতে হবে।”

যৌথ মালিকানা ব্যবস্থায় চলবে নতুন মিয়ানমারস্যাট-২। অন্যদিকে ইজারা ব্যবস্থায় চলছে দেশটির অন্য স্যাটেলাইট ব্যবস্থা মিয়ানমারস্যাট-১।

নতুন স্যাটেলাইটের জন্য ব্যয় বলা হয়েছে ১৫৫৭০ কোটি মার্কিন ডলার।

এই স্যাটেলাইট চুক্তিতে ট্রান্সপন্ডারে ‘ইনডিফিজিবল রাইট অফ ইউজ (আইআরইউ)’ যোগ করতে সভায় প্রস্তাব করেন মিন সু। এই চুক্তির বিধান পরিবর্তন করা যাবে না বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে আইএএনএস।

বর্তমানে যে মন্ত্রণালয়গুলো মিয়ানমারস্যাট-১ এর জন্য কাজ করছে সেগুলোকেও ডেকেছেন দেশটির ভাইস-প্রেসিডেন্ট। বৈদেশিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তাদের চুক্তি শেষ হওয়ার পর বাইরের স্যাটেলাইট যাতে মিয়ানমারস্যাট-২ ভাড়া নেয় সে লক্ষ্যেই মন্ত্রণালয়গুলোকে ডাকা হয়।

0%
0%
Awesome
  • User Ratings (0 Votes)
    0
Share.

একটি রিপ্লে দিন